1. mznrs@yahoo.com : MIZANUR RAHMAN : MIZANUR RAHMAN
  2. jmitsolutionbd@gmail.com : jmmasud :
রবিবার, ০৭ অগাস্ট ২০২২, ১০:০৩ অপরাহ্ন

ভালবাসার মূল্য

  • প্রকাশিত : সোমবার, ১৮ মে, ২০২০
  • ৪৩৬ জন সংবাদটি পড়েছেন।

নাঈম রুম্মান

“আল্লাহ ও রাসুলকে পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি ভালো না বাসলে প্রকৃত মুমিন হওয়া যাবেনা” এই বিষয়টা নিয়ে তালহা আজ বেশ বড়সড় বয়ান করলো । বয়ানটা শোনার পর থেকেই আমার মনে একটা খটকা বেঁধে আছে, নিজের বাবা-মা থেকেও আল্লাহর রাসূলকে বেশি ভালবাসা কীভাবে সম্ভব? খটকা নিয়ে উপস্থিত হলাম বন্ধু তালহার কাছেই।

স্বভাবতই তালহা খানিকটা নিরব থেকে লম্বা লেকচারের প্রস্তুতি নিয়ে বলতে শুরু করলো, আমরা বাবা-মাকে অনেক ভালবাসি কেন বল তো? কারণ ওনারা নিজেদের সর্বস্ব বিলিয়ে দেন আমাদের ভবিষ্যত গড়ার জন্য। আমাদের জীবনের সুখের জন্য তাঁরা নিজেদের সুখ ত্যাগ করেন।

ভাবুক চেহারা নিয়ে সম্মতি জানালাম আমি।

খেয়াল কর, আমাদের জীবনটা ক্ষণস্থায়ী। আমাদের ক্ষণস্থায়ী সুখের জন্য বাবা-মা ত্যাগ স্বীকার করেন, কষ্ট করে আমাদের চল্লিশ পঞ্চাশ বছরের জীবন গড়ে দেন! তাতেই আমরা ওনাদেরকে এতটা ভালবাসি। এখন যদি কেউ ক্ষণস্থায়ী জীবনের পরিবর্তে আমাদের চিরস্থায়ী জীবনের জন্য ত্যাগ স্বীকার করেন তাহলে? আমাদের চিরস্থায়ী জীবনের সুখের জন্য কেউ যদি নিজের জীবনের সুখ ত্যাগ করেন তাহলে?

নিজের মাতৃভূমি, ভিটেমাটি সব ছাড়েন আমাদের চিরস্থায়ী সুন্দর জীবন গড়ে দেয়ার জন্য, তাহলে তাকে কতটা ভালবাসা উচিত? কোন পথে চিরস্থায়ী জীবনে সুখ মিলবে সেই বার্তা পৌঁছে দিতে গিয়ে কেউ যদি তায়েফে রক্তাক্ত হন, উহুতে আহত হন, খন্দকে ক্ষুধায় পেটে পাথর বাঁধেন তাঁকে কতটা ভালবাসা দরকার? এমনকি আমাদের জন্য তিনি স্বীয় গোত্র কর্তৃক পর্বতের অধিত্যকায় বয়কটের স্বীকার হন! অনাহারে অনিদ্রায় কাটে তিনটি বছর শুধু মাত্র আমাদেরকে হেদায়েতের পথ দেখানোর অপরাধে তিনি কতটা ভালবাসা পাওয়ার দাবীদার?

লক্ষ্য কর, তিনি তো ছিলেন কেবল বার্তাবাহক! শুধুমাত্র হেদায়েতের বাণী পৌঁছে দিলেই তিনি তাঁর দায়িত্ব থেকে মুক্তি পেয়ে যেতেন! স্বয়ং আল্লাহ পাক বলতেছেন,

وَ مَاۤ اَرۡسَلۡنٰکَ اِلَّا مُبَشِّرًا وَّ نَذِیۡرًا

আমি তো তোমাকে শুধুমাত্র সুংসবাদদাতা ও সতর্ককারী রূপেই প্রেরণ করেছি। (সুরা ফুরকান: ৫৬)

যেখানে শুধু পৌঁছে দিলেই তার দায়িত্ব শেষ সেখানে তিনি উম্মতের জন্য এত পাগলপারা ছিলেন যে, তাদের ঈমান আনা নিয়ে সর্বদা পেরেশান থাকতেন, কেউ ঈমান না আনলে তিনি এতটাই মর্মাহত হতেন যেন কষ্টে নিজেকে শেষ করে দিবেন! স্বয়ং আল্লাহ পাক বলতেছেন,

لَعَلَّکَ بَاخِعٌ نَّفۡسَکَ اَلَّا یَکُوۡنُوۡا مُؤۡمِنِیۡنَ

তারা মুমিন হবে না বলে যেন আপনি আত্মবিনাশী হয়ে পড়বেন!

অর্থাৎ কেউ ঈমান না আনলে আল্লাহর রাসূল এতটা ব্যথিত হতেন যেন দুঃখে নিজেকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিবেন!

একবার চিন্তা কর, আমাদের পরকাল নিয়ে যিনি নিঃস্বার্থভাবে এতটা ব্যাকুল থাকতেন তাঁকে কতটা ভালবাসা যায়! বাবা-মা আমাদের ক্ষণস্থায়ী সুখের জন্য ত্যাগ স্বীকার করায় যদি আমরা তাঁদেরকে এতটা ভালবাসতে পারি, তাহলে যিনি আমাদের চিরস্থায়ী সুখের জন্য এত কষ্ট সহ্য করলেন তাঁকে কতটা ভালবাসা দরকার? আমার চোখ ঝাপসা হয়ে এল, উম্মতের জন্য রাসূলের দরদ ও ভালবাসার গভীরতা কিছুটা আঁচ করতে পারায় আমার হৃদয়ে ভালবাসার রক্তিম গোলাপ ফুটে উঠলো। না, এই ফুলে কোনো কাটা নেই। আছে হৃদয় নিংড়ানো আবেগ ও ভালবাসা।

তালহা থেমে নেই। বলেই চলেছে –শুধুই কি পরকালীন সুখের পথ বাতলে দিয়েছেন? না, ইহকালীন সুখের রাস্তাও বলে দিয়েছেন, জানিয়ে গেছেন, কীভাবে দাম্পত্য জীবন সুখময় হবে? টুকিটাকি কাজ করে কীভাবে স্ত্রীর মন জয় করতে হবে তাও শিখিয়ে গেছেন। সুদ-ঘুষ বিহীন দুর্নীতিমুক্ত জাকাত ভিত্তিক অর্থনৈতিক পলিসির মাধ্যমে কীভাবে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি লাভ করতে হবে সেই পন্থাও বাতলে গেছেন। অর্থনীতির পাশাপাশি সমরনীতিও বলে গেছেন। নিজে রাষ্ট্র পরিচালনা করে কীভাবে একটি শান্তিপূর্ণ রাষ্ট্র ও ইনসাফপূর্ণ আইনবিভাগ কায়েম করতে হবে তাও দেখিয়ে গেছেন।

আমাদের ইহকালীন পরকালীন শান্তির জন্য যিনি জীবনে এত কষ্ট করলেন তাঁকে কি আমরা সবচেয়ে বেশি ভালবাসবোনা? বাবা-মাকে নিয়ে কটুক্তি যদি আমি সইতে না পারি, তাহলে তাঁকে নিয়ে কেউ কটুক্তি করলে কি আমার রক্ত টগবগিয়ে উঠবেনা? আমার হৃদয়ে কি ক্ষোভের আগুন জ্বলবেনা? দেহের শিরা-উপশিরায় কি প্রতিশোধের লেলিহান দাউদাউ করে উঠবেনা?

রাসূলের ভালবাসায় ভিজে চুবচুবে আমার হৃদয়ের কোণ। অশ্রুসজল নয়নে তালহাকে জিজ্ঞেস করলাম, আমরা কেন রাসূলকে এতটা ভালবাসতে পারিনা? তালহা বললো, বস্তুত ক্ষণস্থায়ী জীবনের মোহে পড়ে চিরস্থায়ী জীবনকে আমরা মূল্যই দেইনা। ফলে চিরস্থায়ী জীবনের জন্য যিনি কষ্ট করে গেলেন তাঁর নিঃস্বার্থ ভালবাসাও আমাদের কাছে মূল্যহীন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020
Design Developed By : JM IT SOLUTION