1. mznrs@yahoo.com : MIZANUR RAHMAN : MIZANUR RAHMAN
  2. jmitsolutionbd@gmail.com : jmmasud :
রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ০২:৪০ পূর্বাহ্ন

দেশআলো সম্পাদকের পিতা আলহাজ্ব আবুল কাশেম মাস্টারের ইন্তেকাল

  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ২ জুন, ২০২০
  • ২০১৩ জন সংবাদটি পড়েছেন।

বিশেষ প্রতিবেদক, ভোলাঃ

দেশের জনপ্রিয় অনলাইন পোর্টাল ও মাসিক দেশআলো এর সম্পাদক ও প্রকাশক জনাব মিজানুর রহমানের পিতা আলহাজ্ব আবুল কাশেম মাস্টার ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নাল্লিলাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

শনিবার (৩০ মে) সন্ধ্যা ৬:০০ ঘটিকায় চরফ্যাশন উপজেলার চরকলমী ইউনিয়নের মায়াপাতা গ্রামে নিজ বাড়িতে তিনি ইন্তেকাল করেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, তিনি দীর্ঘদিন ধরে ডায়াবেটিস সহ বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। শনিবার বিকেলে আসর নামাজ পড়ার পর হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে সাথে সাথেই এম্বুলেন্স যোগে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালের জরুরী বিভাগে জরুরী ভিত্তিতে ইসিজি পরীক্ষা করেন। এরপর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

 

রবিবার সকালে দক্ষিণ মায়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। তিনি দুই পুত্র, তিন কন্যা, আত্মীয়-স্বজন ও অসংখ্য শুভাকাঙ্ক্ষী রেখে গেছেন।

তিনি মায়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক ছিলেন। এর আগে ১৯৭০ সাল থেকে তিনি উত্তর মঙ্গল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন। মায়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক থাকাকালীন তিনি তার বাড়ির দরজায় নিজ জমিতে নিজ উদ্যোগে নিজের অর্থে ১৯৯১ সালে দক্ষিণ মায়া প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন। একক ব্যক্তি উদ্যোগে বিদ্যালয়টি চালাতে গিয়ে ১২ বছর আগেই ১৯৯৯ সালে তিনি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চাকরি থেকে অবসর গ্রহণ করেন। দীর্ঘ ১৭ বছর পর তার প্রতিষ্ঠিত প্রাথমিক বিদ্যালয়টি সরকারীকরণ করা হয়।

তিনি ১৯৭২ সাল থেকে শিক্ষকতার পাশাপাশি ফার্মেসী সহ বিভিন্ন ব্যবসার সাথে জড়িত হয়ে সুনাম ও সততার সাথে ব্যবসা পরিচালনা করেন। তিনি একাধারে দীর্ঘদিন বাংলাদেশ কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিষ্ট সমিতির ও বাংলাদেশ গ্রাম ডাক্তার সমিতির চরকলমী শাখার সভাপতি এবং আনজুরহাট বাজার ব্যবসায়ী সমিতির উপদেষ্ঠা ছিলেন। ২০১১ সালে তার অবসরের বছরে হজ্জব্রত পালন করেন।

জনাব আলহাজ্ব আবুল কাশেম মাস্টার তার নিজ বাড়িতে হাফেজী মাদ্রাসা সহ পিতার নামে বায়তুর রহিম জামে মসজিদ প্রতিষ্ঠা করেন। বাড়িতে সর্বশেষ প্রতিবন্ধী শিশুদের চিকিৎসা ও শিক্ষার জন্য “সায়মা ওয়াজেদ পুতুল ইনক্লুসিভ স্কুল ও শিশু বিকাশ কেন্দ্র” নামে দাতব্য স্কুল ও ক্লিনিক প্রতিষ্ঠা করেন।

এখানে তার উদ্যোগে গত ফেব্রুয়ারী মাসে শিশু নিউরো ডিজঅর্ডার শিশুদের চিকিৎসার জন্য ঢাকার ডাঃ এমআরখান শিশু হাসপাতালের শিশু নিউরোলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডাঃ সেলিনা হুসনা ভানু সহ একদল বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ইইজি, জেনেটিক টেষ্ট সহ বিভিন্ন পরীক্ষা করে চিকিৎসা প্রদান করে বিনামূল্যে ঔষধ প্রদান করেন।
তিনি আরো বিভিন্ন সমাজ সেবা মূলক কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত ছিলেন।

সায়মা ওয়াজেদ পুতুল ইনক্লুসিভ স্কুল

তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

প্রিয় সম্পাদকের বাবার ইন্তেকালে দেশ আলো’র কর্মকর্তা, কর্মচারী সম্পাদক মণ্ডলীর মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তারা মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020
Design Developed By : JM IT SOLUTION